Posted inসাম্প্রতিক

যুব মহিলা লীগ নেত্রীর সঙ্গে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার অন্তরঙ্গ একান্ত মুহূর্ত ভাইরাল

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. নুরুদ্দিন শামীমের সঙ্গে কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের এক নেত্রীর অন্তরঙ্গ মুহূর্তের কিছু ছবি ভাইরাল হয়েছে।সোমবার (৩১ জুলাই) সন্ধ্যায় দুজনের একান্ত মুহূর্তের ওই ছবিগুলো ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

ভাইরাল হওয়া ছবিতে দেখা যায়, শামীমসহ ওই নেত্রী তাদের কয়েকজন সঙ্গী নিয়ে মদের আসর বসিয়েছেন। ওই আসরের আরেক ছবিতে সিগারেট হাতে ওই নেত্রীকে শামীমের সঙ্গে ঘনিষ্ট হতেও দেখা যায়। এ ছাড়াও দুজনের একান্ত আরও বেশ কিছু ছবি প্রকাশ হয়েছে।

স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা নুরুদ্দিন শামীম নোয়াখালী-১ (চাটখিল-সোনাইমুড়ী) আসনের সংসদ সদস্য এইচএম ইব্রাহীমের কাছের লোক হিসেবে পরিচিত। এ ছাড়া তিতুমীর কলেজের সাবেক ছাত্রলীগের ওই নেত্রী বর্তমানে কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের পদে রয়েছেন। তার বাড়িও সোনাইমুড়ীর বারোগাঁও ইউনিয়নে।

নুরুদ্দিন শামীম কালবেলাকে বলেন, ‘আমি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার। আমাদের দলীয় প্রতিপক্ষরা ওই নেত্রীর সঙ্গে আমার ছবি সুপার এডিট করে অপপ্রচার করছে। আমি আইনগত ব্যবস্থা নেব।’ তবে ছবিগুলো এডিট নয় বলা হলে তা প্রচার না করতে জোর অনুরোধ করেন শামীম।

অন্যদিকে যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় ওই নেত্রীও তার ছবিগুলো এডিট করা বলে দাবি করেন। তবে ছবি ভাইরালের জন্য যুব মহিলা লীগের ‘রা’ আদ্যক্ষের আরেক নেত্রীকে দায়ী করেন ছাত্রলীগের সাবেক এ নেত্রী। তিনি কালবেলাকে বলেন, ওই মেয়ের কিছুই ছিল না। আমি তাকে খালি হাতে ধরে নেত্রী বানিয়েছি। এখন সে বেঈমানী করে আমার ক্ষতি করার জন্য এসব ভাইরাল করাচ্ছে।

নোয়াখালী-১ (চাটখিল-সোনাইমুড়ী) আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য এইচএম ইব্রাহীম কালবেলাকে বলেন, ‘আমি যেহেতু দলের এমপি স্থানীয় সবাই আমার লোক। নুরুদ্দিন শামীমের সঙ্গে ওই নেত্রীর ছবিগুলো একজন আমাকে পাঠিয়েছে। বিষয়টি দৃষ্টিকটু এবং তাদের একান্ত ব্যক্তিগত তাই কথা বলিনি। তবে শামীম দাবি করেছে ছবিগুলো এডিট করা। বাকিটা আল্লাহ ভালো জানেন।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *